Home / বিশ্ব / করোনা নিরাময়ে বাংলাদেশের রেমডিসিভর চায় ভারতের আসাম সরকার

করোনা নিরাময়ে বাংলাদেশের রেমডিসিভর চায় ভারতের আসাম সরকার

বাংলাদেশ থেকে রেমডিসিভর আমদানির অনুমতি চেয়ে কেন্দ্রকে চিঠি ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রীর. উল্লেখ্য, করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসায় কার্যকরী হয়ে উঠতে দেখা যাচ্ছে রেমডিসিভরকে। দেশে এখন এই ওষুধের অপ্রতুলতা রয়েছে বলে খবর। আর এ কারণে দেশের বেশ কিছু জায়গা থেকে এই ওষুধের কালোবাজারির অভিযোগ উঠে আসছে।

নয়াদিল্লি: দেশে করোনাভাইরাসের অ্যান্টিভাইরাল ওষুধ রেমডিসিভরের চাহিদা দ্রুত বাড়ছে। কিন্তু এর যোগান চাহিদার তুলনায় অপ্রতুল। এই পরিস্থিতিতে রেমডিসিভরের আমদানির জন্য ঝাড়খণ্ড সরকার বাংলাদেশের কিছু ওষুধ কোম্পানির সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন বলেছেন, এই ওষুধ বিদেশ থেকে কিনতে রাজ্য সরকার কেন্দ্রের অনুমতি চেয়েছে।

হেমন্ত সোরেন তাঁর ট্যুইটে লিখেছেন, ঝাড়খণ্ডে করোনা সংক্রমণের বাড়বাড়ন্তের পরিপ্রেভিতে রেমডিসিভর ওষুধের প্রয়োজনীয়তা ব্যাপকভাবে অনুভূত হচ্ছে। জরুরিকালীন ভিত্তিতে ব্যবহারের জন্য ৫০ হাজার ভয়াল কেনার জন্য বাংলাদেশের ওষুধ কোম্পানিগুলির সঙ্গে আমরা যোগাযোগ করেছি। আমি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সদানন্দ গৌড়কে চিঠি লিখে এই ওষুধগুলির দ্রুত আমদানির অনুমতি চেয়েছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*