Home / রাজনীতি / আজ শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৪০তম মৃত্যুবার্ষিকী

আজ শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৪০তম মৃত্যুবার্ষিকী

ঢাকাঃ আজ শহীদ রাষ্ট্রপতি ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৪০তম মৃত্যুবার্ষিকী। ১৯৮১ সালের ৩০ মে ভোরে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে বিপথগামী কিছু সেনাসদস্যের হাতে নির্মমভাবে নিহত হন তৎকালীন রাষ্ট্রপতি জিয়া। এর পর থেকে বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠন এবং সমমনা দলগুলো দিনটিকে জিয়াউর রহমানের ‘শাহাদাতবার্ষিকী’ হিসেবে পালন করে আসছে। করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে দলের প্রতিষ্ঠাতার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ভার্চুয়াল আলোচনা সভাসহ ১৫ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে আজ ভোরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ সব মহানগর ও জেলা কার্যালয়ে দলীয় পতাকা অর্ধনমিত, কালো পতাকা উত্তোলন ও নেতা-কর্মীদের কালো ব্যাজ ধারণ। বেলা ১১টায় শেরেবাংলা নগরে জিয়াউর রহমানের সমাধিতে দলের শ্রদ্ধা নিবেদন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঢাকা মহানগরীর ৮০টি স্থানে মহানগর বিএনপি এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে অসহায়-দুস্থদের মাঝে খাদ্য ও বস্ত্র বিতরণ করা হবে। এতে বিএনপি মহাসচিব ও সিনিয়র নেতৃবৃন্দ অংশ নেবেন। এ উপলক্ষে গতকাল বিকালে কেন্দ্রীয় বিএনপির উদ্যোগে ভার্চুয়াল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। নগরীর বিভিন্ন স্থানে দুস্থ ও ছিন্নমূল মানুষের মাঝে খাদ্য বিতরণ করে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন (জেডআরএফ)। এদিকে দলের প্রতিষ্ঠাতার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এক বাণীতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, জাতির ক্রান্তিকালে জিয়াউর রহমানের নেতৃত্ব ছিল অবিস্মরণীয়। তিনি সব সংকটে দেশ ও জনগণের পক্ষে অবস্থান গ্রহণ করেন। এই মহান জাতীয়তাবাদী নেতার জনপ্রিয়তা দেশি-বিদেশি চক্রান্তকারীরা কখনই মেনে নিতে পারেনি বলে তাঁকে হত্যা করা হয়। ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সেক্টর কমান্ডার ও ‘জেড ফোর্স’ এর অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেন জিয়া। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট তৎকালীন রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিপথগামী কিছু সেনাসদস্যের হাতে নির্মমভাবে নিহত হওয়ার পর জিয়াউর রহমান সেনাপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব নেন। একই বছর ৭ নভেম্বর তিনি প্রধান সামরিক আইন প্রশাসক হিসেবে রাষ্ট্রক্ষমতায় বসেন। ১৯৭৮ সালের ১ সেপ্টেম্বর প্রতিষ্ঠা করেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)।

৩০ মে ভোর ৬টায় দলের নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলীয় পতাকা অর্ধনমিত করণ এবং কালো পতাকা উত্তোলন ও নেতাকর্মীরা কালোব্যাজ ধারণ করবেন। ওই দিন বেলা ১১টায় দলের মহাসচিব জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যবৃন্দ জিয়াউর রহমানের মাজারে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ ও মাজার জিয়ারত করবেন। দুপুর ১২টার পর ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ বিএনপি এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন পর্যায়ক্রমে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ ও মাজার জিয়ারত করবেন।

ঢাকা মহানগরীর ৪০টি স্থানে ঢাকা মহানগর বিএনপি এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে অসহায় দুস্থ মানুষের খাদ্যদ্রব্য ও বস্ত্র বিতরণ করা হবে। বিএনপি’র মহাসচিব, জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যবৃন্দ সহ সিনিয়র নেতৃবৃন্দ এই কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবেন।

বিএনপি’র মহাসচিব, জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যবৃন্দ সহ সিনিয়র নেতৃবৃন্দ এই কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবেন।

৩১ মে ঢাকা মহানগরীর ৪০টি স্থানে দুঃস্থ ও অসহায় মানুষের মধ্যে খাদ্য দ্রব্য/বস্ত্র বিতরণ করা হবে। বিএনপি’র মহাসচিব, জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যবৃন্দ সহ সিনিয়র নেতৃবৃন্দ এই কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবেন।

জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক দল (জাসাস) এর উদ্যোগে শহীদ জিয়ার জীবনভিত্তিক আলোকচিত্র প্রদর্শনী

০১ জুন বেলা ১১টায় জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের উদ্যোগে সুপ্রিম কোর্ট বার মিলনায়তনে শহীদ জিয়ার কর্মময় জীবনের ওপর আলোচনা সভা হবে।

০২ জুন দুপুর আড়াইটায় জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আলোচনা সভা হবে।

০৩ জুন বেলা ১১টায় জাতীয়তাবাদী যুবদলের উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবে আলোচনা সভা হবে।

০৪ জুন বাদ আসর জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের উদ্যোগে শহীদ জিয়ার আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া মাহফিল হবে।

০৫ জুন জাতীয়তাবাদী মৎস্যজীবী দলের উদ্যোগে আলোচনা সভা হবে।

০৬ জুন সকাল ১০টায় জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দলের উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবে আলোচনা সভা হবে।

০৭ জুন সকাল ১০টায় জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থা (জাসাস) এর উদ্যোগে আলোচনা সভা হবে।

০৮ জুন জাতীয়তাবাদী তাঁতী দলের উদ্যোগে আলোচনা সভা হবে।

০৯ জুন জিয়া স্মৃতি পাঠাগারের উদ্যোগে শহীদ জিয়ার ওপর প্রকাশিত বই প্রদর্শনী হবে।

০১ জুন থেকে ১২ জুন পর্যন্ত : দেশব্যাপী জেলা ও মহানগরীতে সংশ্লিষ্ট ইউনিট বিএনপির উদ্যোগে শহীদ জিয়ার কর্মময় জীবনের ওপর আলোচনা সভা। বিএনপির সিনিয়র নেতৃবৃন্দ সরাসরি অথবা ভার্চুয়ালি জেলা ও মহানগরের এই কর্মসূচিতে অংশ নেবেন।

এছাড়াও অনুরূপভাবে সারা দেশের জেলা, মহানগর, উপজেলা/থানা ও পৌরসহ সকল ইউনিট কার্যালয়ে বিএনপি’র উদ্যোগে সাবেক রাষ্ট্রপতি শহীদ জিয়াউর রহমান বীর উত্তমের ৪০তম শাহাদৎবার্ষিকী উপলক্ষে ৩০ মে সকাল ৬টায় দলীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ, কালো পতাকা উত্তোলন এবং নেতাকর্মীরা কালো ব্যাজ ধারণ করবেন। এছাড়া স্ব স্ব ইউনিটসমূহ সুবিধামতো সময়ানুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে ৩০ মে দোয়া মাহফিল এবং দুস্থদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী/বস্ত্র বিতরণ করবে।

বিএনপির অঙ্গসংগঠনসমূহ জেলা ও মহানগরী পর্যায়ে অনুরূপ কর্মসূচি গ্রহণ করবে। শহীদ জিয়ার ৪০তম শাহাদাৎবার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপি এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে পৃথক পৃথক পোস্টার প্রকাশ করা হয়েছে এবং ৩০ মে বিভিন্ন সংবাদপত্রে ক্রোড়পত্র প্রকাশিত হবে। জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক দল (জাসাস) এর উদ্যোগে শহীদ জিয়ার জীবন ভিত্তিক আলোকচিত্র প্রদর্শনী হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*